দিবালা নৈপুণ্যে বার্সাকে উড়িয়ে দিল জুভেন্টাস

SHARE

ওয়ার্ল্ড ক্রাইম নিউজ বিডি ডট কম,নিজস্ব প্রতিনিধি,১২ এপ্রিল : তুরিনে ম্যাচের দৃশ্যপটটা পুরোপুরি নিজের দখলে নিয়ে নিলেন পাওলো দিবালা। ফুটবল দুনিয়ায় যাকে ‘নতুন মেসি’ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়া হচ্ছে। আর্জেন্টাইন এই তরুণ তারকার ২ গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগটা ৩-০ গোলে জিতে নিয়েছে জুভেন্টাস।এখনো বার্সার বিদায় ঘণ্টা বাজেনি। তবে ফিরতি পর্বে ন্যু ক্যাম্পে পাহাড় ডিঙিয়েই ইউরোপ-সেরার লড়াইয়ের শেষ চারে খেলতে হবে লুইস এনরিকে আর লিওনেল মেসির দলকে। ম্যাচটা কেবল জিতলেই চলবে না। ব্যবধানটা রাখতে হবে ৪ গোলের। পাহাড় ডিঙিয়েই পিএসজির বিপক্ষে শেষ ষোলোর বাধা পেরিয়েছিল বার্সা। প্রথম লেগে ৪-০ গোলে হেরেও পরের লেগটা জিতেছিল অভাবনীয়ভাবেই। কিন্তু প্রতিদিন কী সে ধরনের কিছু ঘটানো সম্ভব?

আজ মঙ্গলবার রাতে তুরিনোতে শেষ আটের প্রথম লেগে শুরু থেকেই বার্সেলোনাকে চেপে ধরে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে প্রথম সুযোগটা আদায় করে নেয় স্বাগতিকরা। মিরালেম পিয়ানিচের ফ্রি-কিক থেকে গনসালো হিগুয়েইনের হেড সোজা যায় গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের কাছে। বার্সেলোনাকে দম ফেলার সুযোগ না দিয়ে ৭ম মিনিটে এগিয়ে যায় সেরি আর টানা ৫ বারের চ্যাম্পিয়নরা। জেরেমি ম্যাথিউ আটকাতে পারেননি হুয়ান কুয়াদ্রাদোকে। ডান দিক থেকে কলম্বিয়ার এই উইঙ্গার বল পাঠান ডি-বক্সে। বল বাঁ পায়ে থামিয়ে ঘুরে ডান পায়ের বাঁকানো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে পাঠিয়ে দেন দিবালা।
২১তম মিনিটে মেসির জাদুকরী ফুটবলে সমতায় ফেরার খুব ভালো একটা সুযোগ তৈরি হয়েছিল। বেশ দূর থেকে চার ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে ডি-বক্সে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাকে নিখুঁতভাবে বল বাড়ান আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। খুব কাছ থেকে স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের নেয়া শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান ৩৯ বছর বয়সী জানলুইজি বুফ্ফন। এর ৭৬ সেকেন্ডের মধ্যে ব্যবধান দ্বিগুণ করে ফেলেন দিবালা। বোঝালেন, তাকে কেন আর্জেন্টিনায় ‘নতুন মেসি’ বলা হয়। এবার বাঁ দিক থেকে আক্রমণে মারিও মানজুকিচ বল পাঠান দিবালাকে। ডি-বক্সের প্রান্তে থাকা ২৩ বছর বয়সী এই তারকা প্রথম ছোঁয়াতেই বাঁকানো শটে সামনে থাকা জেরার্দ পিকের পাশ দিয়ে বাঁ পোস্ট ঘেঁষে বল জালে পাঠান। জাতীয় দল সতীর্থ মেসির চোখে-মুখে তখন হতাশা।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। মেসির নিচু শট পোস্টের পাশ দিয়ে যাওয়ার পর জুভেন্টাসের সামি খাদিরার দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য গোলে থাকেনি। ৫৩তম মিনিটে হিগুয়েইনের দূরপাল্লার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকান টের স্টেগেন। পরের মিনিটে খুব কাছ থেকে আবারও হিগুয়েইনের শট ঠেকান তিনি। তবে এর পরের মিনিটে আর পারেননি। পিয়ানিচের কর্নার থেকে গায়ে লেগে থাকা মাসচেরানোকে ফাঁকি দিয়ে নেয়া দীর্ঘদেহী জর্জো কিয়েল্লিনির হেডে বল এবার ঢোকে জালে। ৬৮তম মেসির বাড়ানো বলে সুয়ারেসের নিচু শটে হাত লাগিয়ে বাঁচান বুফ্ফন। অন্তত মূল্যবান একটি অ্যাওয়ে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে আক্রমণ চালিয়ে বার্সেলোনা। তবে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মাত্র দুটি গোল খাওয়া জুভেন্টাসের রক্ষণ ভাঙতে পারেননি মেসি, নেইমার, সুয়ারেসরা।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY