সিরাজগঞ্জে কাল হরতাল ডেকেছে বিএনপি

SHARE

ওয়ার্ল্ড ক্রাইম নিউজ বিডি ডট কম,নিজস্ব প্রতিনিধি,১০ এপ্রিল : সিরাজগঞ্জের সয়দাবাদে ট্রেনে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। টুকুকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার সিরাজগঞ্জে সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত হরতাল ডেকেছে জেলা বিএনপি। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ৩টি মামলায় আইনজীবীর মাধ্যমে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। জামিনের শুনানি শেষে বিচারক জাফরোল হাসান জামিন নামঞ্জুর করে টুকুকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক রাশেদুল হাসান রঞ্জন হরতালের তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ইকবাল হাসান মাহমুদকে কারাগারের পাঠানোর আদেশের পর তাৎক্ষণিক দলীয় নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে হরতাল সমর্থনে শ্লোগান দেয়। এসময় আদালত চত্বরে শত শত নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাড. আব্দুর রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর আইনজীবী অ্যাড. ইন্দ্রজিত সাহা, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি অ্যাড. রুহুল আমিন বাবু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নাজমুল ইসলাম। মামলার নথি ও আইনজীবীদের সূত্রে জানা যায়, ছাত্রদল নেতা শহীদ নাজির উদ্দিন জেহাদের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ২০১০ সালের ১১ অক্টোবর সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সয়দাবাদের মুলিবাড়িতে ছাত্র গণজমায়াতের আয়োজন করে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসন ও তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া।

সমাবেশ চলাকালে দ্রুত গতির একটি ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে বিএনপির ৬ কর্মী নিহত হয়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ জনতা ট্রেনে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ হোসেন, জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাড. গোলাম হায়দার, সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক কেএম সাইফুল ইসলাম, তৎকালীন র্যাব-১২ এর ডিএডি আবু বকর সিদ্দীক, বঙ্গবন্ধু পশ্চিম থানার এসআই আছলাম আলী, দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর জিআরপি থানার এএসআই গোলাম তৌহিদ, সিরাজগঞ্জ বাজার জিআরপি থানার এএসআই কাজী মো. সাইদুর রহমান বাদী হয়ে মোট ৭টি মামলা দায়ের করেন।

এসব মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়। ইতোমধ্যে মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হয়ছে। সোমবার সকালে ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এসব মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY