হলি আর্টিজানের জঙ্গিদের কবরে বেষ্টনি দিতে এসেছিল কারা?

SHARE

zxcvbnmওয়ার্ল্ড ক্রাইম নিউজ বিডি ডট কম,নিজস্ব প্রতিনিধি,০১ জুলাই : গুলশান হামলার ৮৩ দিন পর চিহ্নিত পাঁচ হামলাকারীর লাশ বেওয়ারিশ হিসেবে আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামের মাধ্যমে জুরাইন কবরস্থানে দাফন করা হয়েছিল।

কয়েক মাস আগে তিনজন লোক এসে কবরগুলো বেষ্টনি দিতে টাকা দিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন গোরখোদক মো. রতন। তবে তাদের পরিচয় তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন।

রতন বলেন, “তিন-চার মাস আগে তিন জন লোক এসেছিল। তাদের দুজনের মুখে দাড়ি ছিল, তারা ছিল বেশ লম্বা। “কবরের সামনে এসে কবরগুলো বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখতে ও সবুজ রং করে দিতে তারা ৩ হাজার টাকা দিয়ে যায়। কবরের ঘাস তুলতেও নিষেধ করে তারা।”

এর আগে কিংবা পরে তাদের আর দেখেননি বলে জানান রতন। চিহ্নিত পাঁচ হামলাকারীর সঙ্গে বেওয়ারিশ হিসেবে হলি আর্টিজানের পাচক সাইফুল ইসলাম চৌকিদারকেও সেখানে দাফন করা হয়েছিল। সাইফুলের পরিবারের সদস্যরা ছাড়া আর কেউ কবর জিয়ারতে যাননি বলে জানান কবরস্থানে দায়িত্বরত কর্মকর্তা মো. শোয়াইব হোসেন।

শ্যামপুর থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক বলেন, “ওখানে জঙ্গিদের পরিবারের কেউ আসে না। পুলিশ প্রতিদিন ওই এলাকায় নিয়মিত টহল দেয়। জঙ্গিদের পরিবারের কেউ এলে কবরস্থানের রেজিষ্ট্রার খাতায় তাদের নাম থাকত।”

তবে শোয়াইব বলেন, “অন্য পাঁচজনের কবর কেউ জিয়ারত করতে আসেননি, এটা শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে বলা যাবে না। কারণ অনেকে নিজেদের পরিচয় দেন না।” বিশেষ বিশেষ দিনে হাজার হাজার লোকজন আসায় তখন নিবন্ধন খাতায় সবার নাম তোলা হয় না বলে জানান তিনি।

লাশ দাফনের সময় ঢাকার পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছিলেন, লাশগুলোর দাবি নিয়ে স্বজনদের কেউ পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি।

সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY