প্রস্তুতি ম্যাচে ১৯৯ রানের বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ

SHARE

ওয়ার্ল্ড ক্রাইম নিউজ বিডি ডট কম,খেলাধূলা প্রতিনিধি,১১ মে:  ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার মিশনে দারুণ করেছে বাংলাদেশ।  ত্রিদেশীয় সিরিজের দুইদিন আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ১৯৯ রানের বিশাল জয় পেয়েছে টাইগাররা। বেলফাস্টের স্টরমন্ট ক্রিকেট মাঠে আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ৩৯৪ রান করেছিল তারা। এরপর ৪১.২ ওভারে স্বাগতিক দলকে ১৯৫ রানে গুটিয়ে দেয় উলভসরা।

সাব্বির রহমানের শতকের সঙ্গে তামিম ইকবালের সেঞ্চুরি বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডকে শক্তিশালী করার অগ্রপথিক ছিল। তাদের দেখানো পথে মাহমুদউল্লাহ ও মুশফিকুর রহিমের ঝোড়ো জুটিতে ৪০০ ছুঁইছুঁই স্কোর করে সফরকারীরা। প্রতিপক্ষকে লক্ষ্য দেওয়ার পর বল হাতে মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মাশরাফি ও সাকিব আল হাসান অবদান রাখেন।

শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে বেলফাস্টের স্টরমন্ট ক্রিকেট মাঠে বুধবার টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। সৌম্য সরকারকে নিয়ে তামিম ভালো শুরুর ইঙ্গিত দেন। কিন্তু উপযুক্ত সঙ্গ পাননি তিনি। দলীয় ৪৪ রানে ক্রেইগ ইয়ংয়ের বলে টাইরন কেনের হাতে ক্যাচ দেন সৌম্য (১৭)।

এরপর তামিমের সঙ্গে ক্রিজে থিঁতু হয়ে যান সাব্বির। দুজনে শতাধিক রানের জুটি গড়েন। এর আগে ৪৯ বলে ১১ চারে ৫০ রান পূর্ণ করেন তামিম। আগের দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ না খেলা এ ওপেনার অবশ্য সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ৭৫ বলে ৮৭ রানে আউট হন তিনি। এন্ডি ম্যাকব্রিনের বলে ইয়ংয়ের হাতে ধরা পড়েন তিনি, ১৪ চার ও ২ ছয়ে সাজানো তার ইনিংস। সাব্বিরের সঙ্গে ১০৩ রানের জুটি গড়েন তিনি।

৪৯ বলে ৭ চার ও ১ ছয়ে হাফসেঞ্চুরি করা সাব্বির সেঞ্চুরি করেন ৮২ বলে। ১৬ চার ও ১ ছয়ে তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছান সাব্বির। আরও চার বল খেলে কোনও রান যোগ না করে রিটায়ার্ড আউট হন তিনি। মোসাদ্দেক হোসেনের সঙ্গে সাব্বির অর্ধশতাধিক রানের জুটি গড়েন ৩৮ বলে। ২৭ বলে ৩১ রান করেন মোসাদ্দেক। সাকিব আল হাসানও করেছেন ঝোড়ো ব্যাটিং, ২৭ বলে করেন ৪৪ রান।

শেষদিকে ঝড় তোলেন মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ। মাত্র ৪৮ বলে ৯১ রানের জুটি গড়ে টেস্ট অধিনায়ক আউট হন। ৪৮ ওভারে দলের ৩৭৬ রানে মুশফিক ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হয়ে সাজঘরে ফেরেন। ২৪ বলে ৪১ রান করে ৪৭তম ওভারে তার ইনিংস শেষ হয়।

মাহমুদউল্লাহ ৩১ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ে ৪৯ রানে আউট হন। মাশরাফি মুর্তজা ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

৩৯৫ রানের বিশাল লক্ষ্যে নেমে শুরুটা শ্লথ ছিল আইরিশদের।  জেমস শ্যাননের সঙ্গে জ্যাক টেক্টরের ৫১ রানের জুটিতে শুরুটা ভালো করে আয়ারল্যান্ড। একাদশ ওভারে রুবেল উইকেরক্ষক-ব্যাটসম্যান শ্যাননকে আউট করার আর একটিও অর্ধশত রানের জুটি গড়তে পারেনি আইরিশরা। পরের ওভারে ফিরে জন অ্যান্ডারসনকে বিদায় করেন গত সেপ্টেম্বরের পর থেকে দেশের হয়ে ওয়ানডেতে না খেলা রুবেল।

অধিনায়ক মাশরাফি পরপর দুই ওভারে নেন অ্যান্ডি ম্যাকব্রায়ান ও সর্বোচ্চ ৬০ রান করা টেক্টরের উইকেট। ৪০ ওভার শেষে আয়ারল্যান্ডের স্কোর ছিল ৬ উইকেটে ১৯৩ রান। সেখান থেকে মাত্র ২ রান যোগ করতে শেষ ৪ উইকেট হারায় দলটি। তিন বলের মধ্যে দুই উইকেট নেন বাঁহাতি স্পিনার সাকিব। পরপর দুই বলে শেষ দুটি উইকেট তুলে নেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজ।

চার ওভারের ছোটো স্পেলে একটি উইকেট নেন সৌম্য সরকার। বোলারদের মধ্যে একমাত্র শুভাশীষ রায় ১০ ওভারের কোটা পূরণ করেন। ৬১ রানে তিনি নেন একটি উইকেট।

১০ ওভারে ৫১ রান করার পর রুবেলের টানা ওভারে ২ উইকেট হারায় তারা। ওপেনার জ্যাক টেকটরের (৬০) ফিফটিতে ৪০ ওভার শেষে লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিয়ে গেছে উলভস। কিন্তু সাকিব ও মুস্তাফিজ তাদের এক ওভারে ২টি করে উইকেট নিয়ে তাদের প্রতিরোধ ভেঙে দেন।

১৭৭ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারানো উলভস তাদের শেষ চার উইকেট হারায় ২ রানের ব্যবধানে। ১৯৩ থেকে ১৯৫ রানের মধ্যে সাকিব-মুস্তাফিজ জোড়া আঘাত হেনে বাংলাদেশের বিশাল জয় নিশ্চিত করেন।

সাকিব ও মুস্তাফিজের সমান ২টি করে উইকেট পান রুবেল ও মাশরাফি।

আইরিশ দলটির মুখোমুখি হওয়ার আগে ইংল্যান্ডে ডিউক অব নরফোক একাদশ ও সাসেক্স একাদশের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। সেখানে দুই ইনিংসের তিনশর উপর রান তোলে তারা। প্রথম ম্যাচে ৩৪৫ রান করার পর বৃষ্টির কারণে ফিল্ডিং করতে পারেনি বাংলাদেশ। পরের ম্যাচে সাসেক্সকে ৩১৫ রানের টার্গেট দিয়ে ১৩৪ রানে জিতেছিল তারা।

আগামী শুক্রবার ডাবলিনে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ৩৯৪/৭

আয়ারল্যান্ড ‘এ’: ৪১.২ ওভারে ১৯৫ (শ্যানন ৩১, টেক্টর ৬০, অ্যান্ডারসন ৬, টেরি ২২, ম্যাকব্রায়ান ১৮, শেন ৯, ডেনিসন ২৪, কেন ৬, গ্র্যাসি ০, ইয়ং ১, লিটল ০*; মুস্তাফিজ ২/১৭, শুভাশীষ ১/৬১, মাশরাফি ২/৩১, রুবেল ২/৩৫, সাকিব ২/৩২, সৌম্য ১/১৩)

ফলাফল: বাংলাদেশ ১৯৯ রানে জয়ী

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY